‘দাউদকান্দিতে ছাত্রলীগকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ,উপ.চেয়ারম্যানের ক্ষোভ’

0 302

 

||নিজস্ব প্রতিনিধি||

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও ছাত্রলীগের সভাপতি তারিকুল ইসলাম নয়ন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোঃ দেলোয়ার পারভেজ দোলন, এবং উপজেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন, দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত স্টাফ সহ ১০৩ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের করায় ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা এবং ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে এবং অনতিবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে। এই মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজর মোহাম্মদ আলী (অব.) তার নিজের ফেসবুক পেইজে এক স্ট্যাটাসে তীব্র ক্ষোভ এবং প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

দাউদকান্দি উপজেলা ছাত্রলীগের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ সমাবেশে সন্ত্রাসীদের হামলার একাংশ এবং ছবি।

উল্লেখ্য, গত ২৭ আগস্ট দাউদকান্দি উপজেলার মারুকা ইউনিয়নে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের দ্রুত বিচারের দাবিতে উপজেলা ছাত্রলীগ কর্তৃক বিক্ষোভ সমাবেশ এবং প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। আবার একই স্থানে দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের একাংশের (বিতর্কিত কমিটি) আহ্বায়ক খন্দকার শাহজাহানের সভাপতিত্বে শোক সমাবেশ ডাকা হয়। ছাত্রলীগ কর্তৃক আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ এবং প্রতিবাদ সভা শেষে বিক্ষোভ মিছিল কালে পথেই উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের একাংশের আহ্বায়ক খন্দকার শাহজাহানের নেতৃত্বে এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর এর সামনেই , মিছিলে অংশগ্রহণ কিত উপজেলা ছাত্রলীগ এবং মারুকা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উপর লাঠি সোটা এবং দেশীয় অস্ত্র নিয়ে চড়াও হন। এতে আহত হন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দিন সহ আরও ৪-৫ জন। ঘটনার দিন রাতে মোহাম্মদ নাসির বাদী হয়ে খন্দকার শাহজাহানকে প্রধান আসামি করে দাউদকান্দি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।কিন্তু ঠিক দু’দিন পরেই, উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের একাংশের যুগ্ম-আহ্বায়ক বিল্লাল মজুমদার বাদী হয়ে কুমিল্লা জজ কোর্টে দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তারিকুল ইসলাম নয়ন, সাধারণ সম্পাদক(ভারপ্রাপ্ত) মোঃ নাসির, দাউদকান্দি উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি দেলোয়ার পারভেজ দোলন এবং মারুকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মী সহ ১০৩ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।

প্রতিনিধির সাথে কথা বলার সময় উপজেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন জানান, দাউদকান্দি উপজেলা ছাত্রলীগের নামে যে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে অনতিবিলম্বে তা প্রত্যাহার না করলে উপজেলা ছাত্রলীগ রাজপথে নামতে বাধ্য হবে। এছাড়াও তিনি বলেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের একাংশের বিতর্কিত কমিটির আহ্বায়ক এবং যুগ্ম আহ্বায়ক কেন্দ্রীয় নেতার ইন্ধনে, যেভাবে ছাত্রলীগের নামে মিথ্যা মামলা করেছে এটা হাস্যকর। আমাদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে এসে সন্ত্রাসী হামলা করে যায়, আবার তারাই আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। এমনকি মামলায় এমন মানুষদের কেউ প্ররোচনামূলক ভাবে দেখানো হয়েছে যারা এই ঘটনার সাথে কোন ভাবে সম্পৃক্ত নয়।

দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজর মোহাম্মদ আলী (অব.) দাউদকান্দি উপজেলা ছাত্রলীগ সহ অন্যান্য সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন “এ নিয়ে তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হচ্ছে, আপনার মত খুনি মোস্তাকের প্রেতাত্মা কিছুই না!

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার সবুর কাজটা ভাল করেন নাই। সাহস নাই আপনার, সাহস থাকলে “ আপনি আমার নামে মামলা দিতেন”। এর ফলাফল আপনাকে ভোগ করতেই হবে। দাউদকান্দিতে আসেন এইবার।গত ১২ বিএনপি-জামাত আমার নেতা মেজর জেনারেল(অ.) সুবিদ আলী ভূঁইয়া, এমপি মহোদয়ের নির্দেশে মোকাবেলা করে আসছি। আপনার মত খুনি মোস্তাকের প্রেতাত্মা কিছুই না”

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.