নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় গৌরীপুর খিদমা হাসপাতাল সিলগালা করলেন উপজেলা প্রশাসন

0 65

 

||নিজস্ব প্রতিনিধি||

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে চিকিৎসকের অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় বেসরকারি একটি হাসপাতল সিলগালা করেছে উপজেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার গৌরীপুরে খিদমা ডিজিটাল হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কামরুল ইসলাম খান প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করার আদেশ দেন।

কামরুল ইসলাম জানিয়েছেন, গত ১ সেপ্টেম্বর সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা তাছলিমা আক্তার (২৪) নামে এক গৃহবধূ খিদমা হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাতে যান। পরীক্ষা করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে জানান যে, তিনি নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এ সময় হাসপাতালে ভর্তি হয়ে ২ সেপ্টেম্বর অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সন্তান জন্মদানের পরামর্শ দেন তারা। ৪ সেপ্টেম্বর ওই হাসপাতালে ভর্তি হন তাছলিমা। সন্ধ্যার পর অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সন্তান জন্ম হয়। 

তিনি আরও জানিয়েছেন, সন্তান জন্মদানের পর নবজাতকের প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাৎক্ষণিকভাবে তাছলিমা ও নবজাতককে ঢাকার মাতুয়াইল হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান নবজাতক অনেক আগেই মারা গেছে। পরে গত রোববার বিকেলে তাছলিমা আক্তারকে দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেওয়া হয়। এ সময় হাসপাতালটিতে ভর্তি থাকা রোগীদের পাশের একটি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, গত ৫ সেপ্টেম্বর গৃহবধূর স্বামী জামাল হোসেন বাদী হয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে দাউদকান্দি মডেল থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলায় মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) কুমিল্লার আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন হাসপাতালের মালিক দেওয়ান মো. সাইফুল ইসলাম।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, দোনারচর ২০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) সিনথিয়া তাছমিন প্রমুখ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.