মেজর মো. আলীকে অভিনন্দন জানাতে মালদ্বীপ থেকে ছুটে আসলেন আব্দুল্লাহ ফায়াজ

0 352

||নিজস্ব প্রতিনিধি||

সম্পর্ক, বিনে সুতোয় গাঁথা এক বন্ধনের নাম। সম্পর্কে মায়ার টানে প্রিয়জনকে সঙ্গ দিতে কেউ কেউ ছুটে যায় একদেশ থেকে অন্যদেশে।বলছি মেজর মোহাম্মদ আলী(অব.) ও  আবদুল্লা আল ফায়াজ এর কথা।তারা উভয়েই উভয়ের পরম বন্ধু। গেলো বছর মালদ্বীপ ভ্রমণে যায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। সেখানে যাওয়ার পর ঐ দেশের রাজধানী মালে শহরে পরিচয় হয় উভয়ের। সেই থেকে দুজনের বন্ধুত্যের সম্পর্ক জমে ওঠে দারুণ।একে অপরের সাথে প্রায় যোগাযোগ হতো স্কাইপি ও হোয়াটসঅ্যাপে। ফায়াজ সেই পরম বন্ধুত্যের মূল্য দিতে সম্পর্কের টানে প্রায় ৩ হাজার মাইল আকাশ পথ পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশের দাউদকান্দি আসলেন মালদ্বীপ এর নাগরিক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবদুল্লা আল ফায়াজ। তিনি আজ মঙ্গলবার সকাল ৮ টা ১৫ মিনিটে ঢাকা হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। দুপুর ২ টায় দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ এর চেয়ারম্যান এর সরকারি বাসভবন পায়রায় আসেন। তার আসার একটাই উদ্দেশ্য। সেটা হলো টানা দ্বিতীয় বারের মতো মেজর(অব.) মোহাম্মদ আলী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় তাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাতে সুদূর মালদ্বীপ থেকে ছুটে আসলেন আবদুল্লা আল ফায়াজ। 

উপজেলা পায়রা ভবনে উপজেলা চেয়ারম্যানকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান পরদেশি আল-ফায়াজ।তারপর দু’জনে কুশল বিনিময় ও খোশগল্পে মেতে ওঠেন। 

দুপুরের খাবার শেষ করে উপজেলা চেয়ারম্যান দ্বিতীয় মেয়াদে উপজেলা পরিষদ এর দায়িত্ব নিতে শপথ নেয়ার জন্য চট্রগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। আবদুল্লা আল ফায়াজ(দিবাহী) মেজর(অব.) মোহাম্মদ আলীকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করার সময় পাশে ছিলেন মালদ্বীপস্থ ইয়েস বাংলার প্রেসিডেন্ট মোখলেস আখন্দ, উপজেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি মো. সোহেল রানা ও ভাজরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নব-নির্বাচিত সভাপতি হালীম সরকার।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.